বিশেষ প্রতিবেদক:

গেল ৩১শে জুলাই রাতে বান্দরবানের লামা উপজেলার আজিজ নগরে ২০০ পিচ ইয়াবাসহ আব্দুর রহিম প্রকাশ রফিক নামের এক মটরসাইকেল আরোহীকে আটক করে পুলিশ। এরপর দিন আসামী রফিকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে আদালতে প্রেরণ করে লামা থানা পুলিশ।

মামলার জব্দ তালিকা এবং প্রাথমিক তথ্য বিবরণীতে তার কাছ থেকে ইয়াবা উদ্ধার দেখানো হলেও জব্দ তালিকায় নেই মটরসাইকেল। যদিও আইন অনুযায়ী একই সাথে আটক মটর সাইকেল জব্দ তালিকায় থাকার কথা।

এদিকে আসামীর পরিবারের অভিযোগ, জব্দ তালিকায় না দেখানো সেই মটর সাইকেল ফেরত দিতে ৩০ হাজার টাকা দাবী করছে আজিজ নগর পুলিশ ক্যাম্পের এএসআই রামপ্রসাদ এবং ওয়্যারলেস অপারেটর জিয়া। যদি আসামীর পরিবার টাকা না দেয় তাহলে গাড়ি বোল্ডোজার দিয়ে ভেঙ্গে আদালতে পাঠিয়ে দেয়ার হুমকিও দেয় ওয়্যারলেস অপারেটর জিয়া।

নির্ভরযোগ্য সূত্র থেকে জানা যায়, সেই মটরসাইকেলটি আজিজনগর পুলিশ ক্যাম্পের ভেতরেই রয়েছে। যেটি এখন ৩০ হাজার টাকার বিনিময়ে পরিবারের কাছে ফেরত দিতে রাজি আজিজনগর পুলিশ ক্যাম্পের ওয়্যারলেস অপারেটর। টাকা দাবী এবং হুমকির অডিও ক্লিপ প্রতিবেদকের হাতে এসেছে।

এ বিষয়ে জানতে এএসআই রামপ্রসাদ কে ফোন করা হলে তার মোবাইলে সংযোগ পাওয়া যায়নি। অপরদিকে ওয়্যারলেস অপারেটর জিয়া জাগরণ বাংলাকে বলেন, তার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করা হয়েছে তা সত্য নয়।

অন্যদিকে মামলার বাদী এস আই ফরিদের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ইয়াবা মটর সাইকেলের ভেতর পাওয়া যায়নি। মোটরসাইকেল আরোহীর শরীর থেকে ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে তাই মোটরসাইকেল জব্দ তালিকায় দেখানো হয়নি।

টাকা দাবীর বিষয়ে বান্দরবানের লামা এএসপি সার্কেল মোঃ রেজুয়ানুল ইসলাম জানান, বিষয়টি দ্রুত তদন্ত করে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য ৩১শে জুলাই রাতে বান্দরবানের লামা থানার আজিজনগর ইউনিয়নের তিন নম্বর ওয়ার্ডে আব্দুর রহিম প্রকাশ রফিককে ইয়াবা এবং মটরসাইকেল সহ আটক করে। যার জি আর মামলা নং-৫৭/২০। তার বিরুদ্ধে করা মামলার জব্দ তালিকায় ইয়াবা উদ্ধার দেখালেও মটরসাইকেল দেখানো হয়নি। যা আইনের পুরোপুরি লঙ্ঘন।

  • 56
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    56
    Shares
  •  
    56
    Shares
  • 56
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here